niche research

নিশ রিসার্চ: দ্বিতীয় পর্ব

নিশ রিসার্চের প্রথম পর্বে আমি নিশ সাইটের কিছু ভুল ধারনা এবং সেগুলোর সঠিক ব্যাখ্যা দেওয়ার চেষ্টা করেছি । মুভি থেকে বা টিভি অনুষ্ঠান থেকেও যে নিশ পাওয়া যায় সে বিষয় নিয়ে সামান্য কিছু কথা বলেছি । আমাদের নিশ রিসার্চের আজকের বিষয় হলো নিশ রিসার্চ করার আগে কি কি ব্যাপার মাথায় রাখা জরুরী । তো চলুন আমরা দেখি কি কি বিষয় আমাদের মাথায় রাখতে হবে ।

নিশ মার্কেটের ব্যাখ্যা দিতে গেলে বলা যায় একটা বিশাল মার্কেট বা বিশাল একটা টপিকের নিদৃষ্ট কোন অংশের সমস্যা এবং সমাধান নিয়ে আলোচনা করা । যে কোন একটা নিদৃষ্ট টপিক যেটা নিয়ে মানুষ জানার চেষ্টা করে । আর আপনার টপিক টা যত স্পেসিফিক হবে ততই ভালো ।

নিশসাইটে সফলতার অনেক মূলমন্ত্র রয়েছে: শুরুর দিকে কোনভাবেই বিগ নিশ ইন্ডাস্ট্রি নেয়া যাবে না। যেমন ইলেকট্রনিক একটা বড় ধরনের টপিক । এই টপিকের মধ্যেই আপনি হাজার হাজার টপিক খুঁজে পাবেন । আপনি কোনটা কভার করবেন ? আপনি যদি ইলেকট্রনিকের মত বড় কোন বিষয় নিয়ে এগোতে চান তাহলে আপনার সফল হওয়ার চ্যান্স ০.০০১% এরও কম । আপনি নিশ্চই মাল্টিমিলিয়ন ডলার কোন প্রতিষ্ঠানকে প্রতিযোগিকে টার্গেট করে এগোতে পারবেন না ।

আপনাকে এই টপিকের আরো গভীরে যেতে হবে । এমন কোন বিষয় খুঁজে বের করে আনতে হবে যেটা নিয়ে এখনো ভালো রকম চাহিদা আছে কিন্তু তেমন কোন প্রতিযোগিতা নেই ।

confused-man

ধরুন আরেকটা বিগ নিশ ইন্ডাস্ট্রি হল ফেসবুক। এখন লক্ষ্য করে দেখেন ফেসবুকের কিন্তু একটা দুইটা টপিক না । অনেকগুলো টপিক । এখন আপনাকে এই ফেসবুকের আরো গভীরে যেতে হবে এবং স্পেসিফিক কিছু টপিক বের করে আনতে হবে । যেমন ফেসবুক ফর মেসেজিং। আরো গভীরে যেতে হলে ফেসবুক মেসেজিং উইথ ফ্রেন্ডস । ফেসবুক মেসেজিং উইথ স্কুল ফ্রেন্ডস । ফেসবুক মেসেজিং উইথ অনলি স্কুল ফ্রেন্ডস “রহিম/ করিম” । এখন দেখেন আমরা কোথায় শুরু করেছিলাম আর কোথায় চলে এসেছি । আপনাকে ঠিক এইভাবে কোন একটা বড় মার্কেটের গভীর থেকে গভীরে দেখতে হবে । আগেই বলেছি টপিক যত স্পেসিফিক হবে ততই ভালো । আশা করি ব্যাপারটা বুঝতে পেরেছেন ।

আপনি এসেই ফেসবুক নিয়ে শুরু করলেন এবং এইটা নিয়ে লেখা শুরু করলেন । এখন আপনি এইটার কোন টপিক নিয়ে লিখবেন বলুনতো । আমি খুঁজছি শুধু একজনের সাথে ফেসবুকে কথা বলবো সেটার ব্যাপারে কোন টপিক, কিন্তু আপনি লিখলেন কিভাবে ফেসবুক গ্রুপ ক্রিয়েট করা যায় । তাহলে কি হলো ? কিছুই হলো না ।

আপনি যখন নিশ সিলেক্ট করবেন তখন সেখানে দুইটা বিষয় বিদ্যমান থাকবে । একটা হলো Passion আরেকটা হলো Problem ।

মনে করুন আপনি গেমস খেলার জন্য বা ডিজাইনিংয়ের জন্য একটা গ্রাফিক্স কার্ড কিনবেন এইটা হলো আপনার Passion । আপনি এখানে টাকা খরচ করে আনন্দ পাবেন ।

দুর্ভাগ্য বশত আপনার গ্রাফিক্স কার্ডটা নষ্ট হয়ে গেল । এখানে আপনি টাকা খরচ করে মোটেও আনন্দ পাবেন না । বরং আপনার খারাপ লাগবে এবং আপনি চাইবেন এই সমস্যার সমাধান হোক । এইটা আপনার একটা Problem । আমরা অনলাইনে এই দুইটা নিয়েই খোঁজ খবর করি । তাই নয় কি ?

তো এখানে আমরা মানুষের Passion আর Problem নিয়ে আলোচনা করছি কেন ? চলুন দেখি ব্যাপারটা ।

Problem Niche:

* টাকা ইনকাম করতে চায় কিন্তু কোন পথ খুঁজে পাচ্ছে না ।

* স্বাস্থ্য নিয়ে বিচলিত

* নেশাগ্রস্ত হয়ে আছে এখন মুক্তি চায়

* এমন কোন বিষয় যেটা তাদেরকে খুব বিরক্ত করছে বা হতাশায় ভুগছে

* অফিসে বা পরিবারে বা প্রিয় মানুষজনের সাথে রিলেশন খুব খারাপ যাচ্ছে ইত্যাদি ।

 

Passion Niche:

* খেলাধুলা

* কোন শখ

* কোন সৃজনশীল কর্মকান্ড

* কোন বিষয়ে দক্ষতা অর্জন

* ভবিষ্যতের জন্য কোন পছন্দনীয় পেশা

* পশু পাখি নিয়ে আগ্রহ

* এমন কোন কিছু যেটা মানুষকে আনন্দ দেয়

* ড্রাইভিং ইত্যাদি ।

এখন একটু লক্ষ্য করে দেখেন কেউ স্বাস্থ্য নিয়ে খুব চিন্তায় আছে । সে এইটার সমাধান খুঁজে যাচ্ছে । আপনি যদি তাকে সঠিক সমাধান টা দিতে পারেন বা বুঝাতে পারেন যে এই বইটা পড়লে বা এই প্রোডাক্টটি কিনলে তার এই সমস্যা আর থাকবে না তাহলে সে অবশ্যই বইটা কিনবে বা আপনার সাজেস্ট করা প্রোডাক্টটি কিনবে । সে সমস্যা নিয়ে হাজির হয়েছে আপনি শুধু তাকে সমাধান দিয়ে দেন । এইটাই আপনার দায়িত্ব ।

 

আর Passion নিশের ব্যাপারটা কি?

কেউ হয়তো গ্রাফিক্স কার্ড কিনবে বা এই ব্যাপারে আগ্রহ আছে । আপনি একেবারে স্পেসিফিক তাকে বলে দিলেন Nvidia GeForce GTX 1080 সিরিজের গ্রাফিক্স কার্ডটা যদি আপনি কিনেন তাহলে ২০১৭ পর্যন্ত আপনি হাই-রেজলুশনে মনের আনন্দে সব গেমস খেলতে পারবেন । এবং এই সিরিজের গ্রাফিক্স কার্ডে যে যে সুবিধা অসুবিধা গুলো আছে আপনি সেটার ব্যাখ্যা দিলেন । আপনি যদি তাকে বুঝাতে সমর্থ হন তাহলে সে এই গ্রাফিক্স কার্ডটা কেনার সম্ভাবনা আছে ।

এখন এখানে আরেকটা ব্যাপার আছে । Passion নিশের মধ্যে যদি Problem খুঁজে তখন কি হবে ? সমস্যাটা কি হতে পারে দেখেন । তার বন্ধুর গেমস খেলার জন্য বিশাল সেটাপ, একসাথে ৩টা মনিটরে 4K রেজলুশনে গেমস খেলে । এখন সেও চায় এইরকম করতে । কিন্তু তার যে গ্রাফিক্স কার্ড আছে ওইটা দিয়ে সে তার বন্ধুর মত খেলতে পারছে না । এখন সে কি করতে পারে ? এখানে আপনি তাকে সমাধান দিবেন যে তুমি যদি তোমার বন্ধুর মত খেলতে চাও তাহলে এই মনিটর গুলো নাও । এরপর একসাথে দুইটা গ্রাফিক্স কার্ড কিনে SLI ( একসাথে দুইটা গ্রাফিক্স কার্ড চালানোর ব্যাবস্থা ) কর । তুমি চমৎকার ভাবে 4K রেজলুশনে গেমস খেলতে পারবে এবং তোমার বন্ধুদেরকেও তোমার এই চমৎকার গেমিং সেটাপ টা দেখাতে পারবে । এখন দেখো কেন তোমার দুইটা গ্রাফিক্স কার্ড কেনা উচিৎ এবং এই মনিটর গুলো কেনা উচিৎ । এতে করে বন্ধুমহলে তুমি প্রফেশনাল গেমার উপাধি পেয়ে যাবে ইত্যাদি ইত্যাদি ।

আপনি যদি তার ডিসিশনটা নিজেই চমৎকার ভাবে উপস্থাপন করে তৈরি করে দিতে পারেন তাহলে সে আপনাকে পছন্দ করবে এবং আপনার কথা শুনবে । তাই নয় কি ?

আপনি তাকে Nvidia GeForce GTX 1080 সিরিজের গ্রাফিক্স কার্ডের বিবরনি না শুনিয়ে তাকে একটা সমাধান দিয়েছেন ।

তো এত গুলো কথা যে বললাম এখানে নিশ রিসার্চের সাথে এইসবের মিল কোথায় । বুদ্ধি খাটিয়ে চিন্তা করে দেখুনতো মিল আসলে কোথায় । আসলে পুরো মার্কেটিং ইউনিভার্সেই এই সাইকোলজির বিচরণ, তাই নিশ সিলেকশানে এটার যথাযথ প্রয়োগ হওয়া উচিত। সেটা কি রকম ? যেমন ধরুন আপনি একটা টপিক পেলেন । আপনি যদি বুঝতে পারেন মানুষ অমুকভাবে এইটা নিয়ে সমাধান খুঁজবে বা আগ্রহ দেখাবে এবং আপনিও সমাধান দিতে পারবেন তাহলে দেখবেন নিশটা সিলেক্ট করা আপনার কাছে সহজ হয়ে যাবে । আর না হলে আপনি চিন্তা করবেন ধুর, এই নিশ নিয়ে কি লিখবো উল্টা পাল্টা । এইটা নিয়ে মানুষ কি আস্ক করতে পারে ? আমি কি সমাধান দেব ?

(চলবে…)

About the Author tamanna

Leave a Comment: